প্রচ্ছদ » ফিচার » বিস্তারিত

ফেলে দেওয়া প্লাস্টিকে বর্ণিল চিত্রকর্ম

২০১৫ সেপ্টেম্বর ২১ ১০:৩৫:০৫
ফেলে দেওয়া প্লাস্টিকে বর্ণিল চিত্রকর্ম

চঞ্চল ঘোষ, দ্য রিপোর্ট : পলিথিনের ব্যাগ, ক্যান, বোতল বা ফেলে দেওয়া দুর্গন্ধযুক্ত জিনিসপত্র থাকে ডাস্টবিনে। পরে নগর বা শহর কর্তৃপক্ষের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নকর্মীরা তা নিয়ে যায় ময়লার ভাগাড়ে। এরপর পরিত্যক্ত প্লাস্টিক বা ময়লার কী হয়? তার খোঁজ কেউ রাখে না।

তবে এক্ষেত্রে একটু ব্যতিক্রম— দক্ষিণ আফ্রিকার শিল্পী এমবোনগেনি বুথেলেজি। ময়লার ভাগাড় থেকে পরম যত্নে সংগ্রহ করে ওই সব প্লাস্টিক দিয়ে চিত্রকর্ম আঁকেন ৪৯ বছর বয়সী বুথেলেজি।

চারুকলায় পড়ার সময় অনেক ছবি এঁকেছেন বুথেলেজি। কিন্তু ফেলে দেওয়া প্লাস্টিক থেকে ছবি নির্মাণের আগ্রহ কোনোদিন তার মাথা থেকে বের হয়নি। তাই আর্ট স্কুল থেকে স্নাতক শেষ করার পর জল রং, তেল রঙ বা তুলির আঁচড় দিয়ে অন্য ছবি যত না এঁকেছেন তার চেয়ে বেশী এঁকেছেন প্লাস্টিক ব্যবহার করে।

গত ২৩ বছর ধরে ডাস্টবিন, পথের ধারে পড়ে থাকা প্লাস্টিক বা ময়লার ভাগাড় থেকে বর্জ্য সংগ্রহ করে ছবি এঁকে চলেছেন ১৯৬৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানাসবার্গে জন্ম নেওয়া এই শিল্পী। সাধারণত চিত্রশিল্পীদের বাসা বা কর্মশালায় থাকে রং ও তুলি, যা দিয়ে ক্যানভাসে তারা ফুটিয়ে তুলেন নানা রকম ছবি। তবে বুথেলেজির ক্যানভাসে তুলির আঁচড় পড়ে না! তার বদলে সেখানে তিনি ব্যবহার করেন প্লাস্টিক। তাই তার বাসা ও কর্মশালায় প্লাস্টিকের ছড়াছড়ি।

প্লাস্টিক সংগ্রহের পর তা টুকরো টুকরো করেন বুথেলেজির। এরপর নানা রঙের ওই প্লাস্টিকগুলো দিয়ে ক্যানভাসে আঁকেন মানব-মানবী, প্রকৃতি, আফ্রিকান ইতিহাস-ঐতিহ্য-সংস্কৃতি, বিমূর্ত ছবিসহ আরও কতকিছু। অভিনব এই চিত্রকর্মের জন্য সারাবিশ্বের শিল্পপ্রেমীদের কাছে সমাদৃত তিনি। প্রদর্শনী করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র, স্পেন, পর্তুগাল ও যুক্তরাজ্যসহ অনেক দেশে।

নিজের চিত্রকর্ম সম্পর্কে বলতে গিয়ে বুথেলেজি বললেন, ‘আমি ময়লা থেকে বর্জ্য এনে তা থেকে সুন্দর কিছু তৈরীর চেষ্টা করি। কারণ জীবনের জন্য তো আমরা সব-সময় তাই করে থাকি।’

(দ্য রিপোর্ট/সিজি/এইচএসএম/আইজেকে/শাহ/সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৫)