প্রচ্ছদ » জাতীয় » বিস্তারিত

নার্স নিয়োগে বয়স শিথিলের সময় বৃদ্ধি

২০১৫ অক্টোবর ১২ ১৭:২৭:৩৮
নার্স নিয়োগে বয়স শিথিলের সময় বৃদ্ধি

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : সংকট নিরসনে আরও ১৩ হাজার ৭২৮ জন নার্স নিয়োগে বয়সসীমা শিথিলের (৩০ এর স্থলে ৩৬ বছর) সময় ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সচিবালয়ে সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা প্রেস ব্রিফিংয়ে এ অনুমোদনের কথা জানান।

এর আগে, ২০১৩ সালের ১৭ জুন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন সেবা পরিদফতরের আওতায় নার্স নিয়োগের বয়সসীমা ৩০ বছর থেকে বাড়িয়ে ৩৬ বছর নির্ধারণ সংক্রান্ত প্রস্তাব অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘স্বাস্থ্যখাতে ডাক্তারদের চেয়ে নার্স বেশি থাকার কথা থাকলেও আমাদের দেশে রিভার্স, ডাক্তারদের চেয়ে নার্স কম। সরকার এটা খুবই গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে। নার্স নিয়োগের ব্যাপারে সরকার অনেক প্রোগ্রাম নিয়েছে।’

‘কিন্তু নার্স নিয়োগের বিষয়ে কিছু জটিলতা আছে, বাস্তব সমস্যা আছে। নিয়োগবিধি নিয়ে জটিলতা, জ্যেষ্ঠতা নিয়ে জটিলতা, মামলা মোকদ্দমা- এ সব কারণে অনেক সময় পদ সৃষ্টি করার পরেও পদ পূরণ করা যায় না। নার্সিংয়ের ক্ষেত্রেও এটা হয়েছে’ বলেন তিনি।

এখন নার্সিংয়ের ক্ষেত্রে চারটি নিয়োগ বিধিমালা আছে জানিয়ে মোশাররাফ হোসাইন বলেন, ‘সরকার সমন্বিতভাবে একটি নিয়োগ বিধিমালা করার চেষ্টা করছে। এটা প্রায় শেষ পর্যায়ে এসেছে, হয়ে যাবে তাড়াতাড়ি।’

তিনি বলেন, ‘নার্সিংয়ে যারা ২০০৬ সাল পর্যন্ত পাস করেছেন তারা চাকরি পেয়েছেন। এরপর থেকে আর কেউ সরকারি চাকরিতে আসতে পারেননি, অনেকের চাকরির বয়স ৩০ বছর পেরিয়ে গেছে।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘মন্ত্রিসভা এর আগেও নার্সদের বয়সসীমা শিথিল করে একটি প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছিল। সেটাও শেষ হয়ে গেছে ২০১৩ সালের ডিসেম্বর মাসে। এরমধ্যে কিছু নিয়োগ হয়েছে।’

‘এখন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলেছে বয়স শিথিল করার বিষয়টি আরেকটু এক্সটেন্ড (বাড়ানো) করা দরকার। ক্যাবিনেট প্রস্তাবটি অনুমোদন দিয়েছে। এটা ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত নার্সদের সরকারি চাকরিতে নিয়োগের বয়সসীমা ৩০ এর জায়গায় ৩৬ বছর হবে।’

বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানে তিন হাজার ৭২৮টি নার্সের পদ শূন্য আছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘এরমধ্যে প্রধানমন্ত্রী কমিট (অঙ্গীকার) করেছেন আরও ১০ হাজার সিনিয়র নার্স নিয়োগ করা হবে। নার্স নিয়োগের জন্য আমাদের মোট শূন্য পদ হবে ১৩ হাজার ৭২৮টি। বয়স শিথিল করার সুবিধার সময় ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানোর কারণে এতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় শূন্য পদগুলো পূরণের সুযোগ পেয়েছে।’

(দ্য রিপোর্ট/আরএমএম/এপি/আরকে/অক্টোবর ১২, ২০১৫)