প্রচ্ছদ » শিল্প ও সংস্কৃতি » বিস্তারিত

আকনের ‘নিঃশব্দ আত্মচিৎকার’ প্রদর্শনী

২০১৫ অক্টোবর ১২ ২০:৩৫:২৮
আকনের ‘নিঃশব্দ আত্মচিৎকার’ প্রদর্শনী

মুহম্মদ আকবর, দ্য রিপোর্ট : সম্পর্ক সুন্দর। সব সময় এক সঙ্গে চলাফেরা। তবুও কি সব কথা বলা যায়? তবুও বলতে চায় মানুষ। কখনও গায়কীর পরোক্ষ ভঙিমায় কখনো বা শৈল্পিক ছোঁয়ায়। শিল্পী আমিনুল ইসলাম আকন এমনই অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন তাঁর নিঃশব্দ আত্মচিৎকার শিরোনামের ছবিতে। তিনি বলতে চেয়েছেন যতো জোরেই চিৎকার করো না কেন একান্ত গভীরের কথা কখনোই শব্দ হয়ে যাবে না। যাবে না কাউকে বলা। চরিত্র শিরোনামের ছবিতে তিনি নিজেকে সবুজ রঙের ঘাসের কাছে ফিরে পেতে চেয়েছেন। শৈশবের দূরন্তপনার জন্য আক্ষেপ করেছেন তাঁর এ ছবিতে। আলোয় আঁধারে শীর্ষক মিনিয়েচার প্রদর্শনীতে রয়েছে ১৩৭টি চিত্রকর্ম। প্রতিটি অঙ্কনেই রয়েছে মানুষের ব্যক্তি জীবন পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় জীবনের নানাবিধ ছাপ। যাপিত জীবনের অপ্রিয় সত্য বেশিরভাগ চিত্রকর্মে যেমন প্রাধান্য পেয়েছে তেমনি জীবনের অনাবিল সৌন্দর্যও প্রকাশ পেয়েছে। অঙ্কুর থেকে বেড়ে ওঠার কথা, পারস্পরিক নির্ভরতা তথা প্রাত্যহিক জীবনের চরম সত্যতার প্রতিচ্ছবিও ফুঠে ওঠেছে অনেক চিত্রকর্মে। তাঁর অঙ্কুরিত, নীলাচল, চরিত্র, প্রকৃতি ও আলিঙ্গন, ছায়াবীথি, আলোয় আঁধারে, আলোর সন্ধান প্রভৃতি এর প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

ইয়োথ সোসাইটি অব আর্ট আয়োজিত চারুকলা ইন্সটিটিউটের জয়নুল গ্যালারির প্রতিটি চিত্রের বৈশিষ্ট্যই অর্ধবিমূর্ত। আর তাই শিরোনামের সঙ্গে এ্যাক্রিলিক, কালি-কলম, জলরঙসহ, মিশ্রমাধ্যমের নান্দনিক সৃষ্টিকে সহজেই বুঝে নিচ্ছে নগরের দর্শনার্থীরা। রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে আগত বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া এক তরুণীর কাছে এ প্রদর্শনীর দেখার পর তার অনুভূতি জানতে চাওয়া হলে— অসম্ভব ভাল লেগেছে বলে জানায়। তার ভাষ্য, ‘আমরা যারা অঙ্কনশিল্পের সঙ্গে সম্পৃক্ত নেই আমার মতো অনেকেই হয়তো ছবি বুঝতে পারি না। তার প্রথম কারণ হলো অঙ্কনের ভাষার সঙ্গে পরিচয় না থাকা। কিন্তু বিমূর্ত কিংবা অর্ধবিমূর্ত চিত্রকর্ম খুব সহজেই অনুমান করা যায়। প্রদর্শনীটিতে এ বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান থাকায় জীবন বাস্তবতার সুন্দর এক অনুভূতি নিয়ে বের হলাম।’

রবিবার শুরু হওয়া প্রদর্শনীটি প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত চলবে। প্রদর্শনী শেষ হবে ১৫ অক্টোবর।

(দ্য রিপোর্ট/এমএ/এপি/অক্টোবর ১২, ২০১৫)