প্রচ্ছদ » নারী » বিস্তারিত

‘যে পুরুষ আসে, তারে তো কেউ খারাপ চোখে দেখে না’

২০১৫ অক্টোবর ১২ ২১:৩০:৫০
‘যে পুরুষ আসে, তারে তো কেউ খারাপ চোখে দেখে না’

লুৎফর রহমান সোহাগ, দ্য রিপোর্ট : রাত বাড়তেই রাজধানীর ফার্মগেট এলাকায় দেখা মেলে ভাসমান যৌনকর্মীর। দুই পাশের রাস্তা, ফুটপাত ছাড়াও ফুটওভার ব্রিজে খদ্দেরের অপেক্ষায় থাকেন তারা। ফার্মগেট পার্কেও (শেরেবাংলা নগর পার্ক) রাতভর দেখা মেলে অসংখ্য যৌনকর্মীর।

ফার্মগেট পার্কে রবিবার এমনি কয়েকজন ভাসমান যৌনকর্মী জানালেন, জীবিকার জন্য যৌনকর্ম করলেও এটাকে তারা ‘সেবামূলক’ কাজ হিসেবেও দেখেন। তাদের একজন সাবিনা (ছদ্মনাম)। তিনি বলেন, অনেকে আমাদের বিরুদ্ধে বড় বড় কথা বলে, আমরা নাকি পার্কের পরিবেশ নষ্ট করছি। কিন্তু হোটেলে যে বড়লোকেরা রাত কাটায় ওসব নিয়া তো কেউ কথা বলে না। আমরা আছি দেখেই তো রিকশাওয়ালা, ভ্যানওয়ালা, হকাররা আসতে পারে।

ফার্মগেটে এক বাসায় কাজ করতে গ্রাম থেকে এসেছিলেন ইয়াসমীন (ছদ্মনাম)। কাজ করতে গিয়ে বাসার মালিকের শারীরিক চাহিদা মেটাতে বাধ্য হতেন তিনি। অভাবের কারণে বাধ্য হলেও পরে পেশা হিসেবে বেছে নেন যৌনকর্মকেই। তিনি বলেন, অনেকে হা করে তাকিয়ে থাকে, আমরাও পুরুষ খুঁজি কিন্তু তারও একটা ভদ্রতা আছে। এ পেশায় আসায় অনেকে খুব খারাপভাবে দেখে, কটুকথা বলে। আমরা না হয় টাকার কারণে এ কাজ করি, কিন্তু যে পুরুষ আসে? তারে তো কেউ খারাপ চোখে দেখে না!

পার্কেরই এক যৌনকর্মী জানালেন, মাঝে মাঝে কম বয়সী চাকরিজীবী ও ছাত্রদের ডাকও পড়ে। তিনি বলেন, সবাই তো আর কম বয়সে বিয়ে করে না। চাকরি নিতেই অনেকের বয়স হয়ে যায় অনেক। আবার রিকশাচালকরা দেখা যায় ঢাকায় একাই থাকে। এদের কি চাহিদা নাই? আমরা না থাকলে রাস্তাঘাটে মেয়েদের আর হাঁটার সুযোগ থাকবে না।

(দ্য রিপোর্ট/এলআরএস/এমডি/সা/অক্টোবর ১২, ২০১৫)