প্রচ্ছদ » ক্রিকেট » বিস্তারিত

রশিদের সাফল্যে ইয়াসিরের আফসোস

২০১৫ অক্টোবর ১৮ ১৫:০২:৪৬
রশিদের সাফল্যে ইয়াসিরের আফসোস

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : আবুধাবিতে পাকিস্তান-ইংল্যান্ড প্রথম টেস্টের নাটকীয়তা দেখার পর আফসোসে পুড়ছেন ইয়াসির শাহ। মাঠে ফিরতে অস্থির চিত্তে অপেক্ষা করছেন এই পাকিস্তানী স্পিনার।

আবুধাবির পিচে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি শেষ দিনে (শনিবার) অনেক নাটকীয়তার পর ড্র হয়েছে। এ দিন দারুণ ক্যারিশমা দেখিয়েছেন অভিষিক্ত ইংলিশ লেগ স্পিনার আদিল রশিদ; নিয়েছিলেন ৫ উইকেট। আর পাকিস্তানের দুই স্পিনার শোয়েব মালিক ও জুলফিকার বাবর ২টি করে উইকেট নিয়ে দিনটিকে স্পিনার’স ডে বানিয়ে দিয়েছেন। আর তাতেই আফসেপাসে পুড়ছেন ইয়াসির শাহ। কেন যে হুট করে আসা ইনজুরি তাকে এই ম্যাচে খেলত দিল না; সেই আফসোস ঝরছে ইয়াসিরের কণ্ঠে। সঙ্গে সিরিজের পরবর্তী দুটি টেস্টে মাঠে নামার জন্য অধীর হয়ে উঠেছেন পাকিস্তানের এই ২৯ বছর বয়সী লেগ স্পিনার।

অবশ্য আবুধাবি টেস্টে ইয়াসিরের খেলার কথাই ছিল। লেগ স্পিনের ভেল্কিতে বর্তমান সময়ে দলকে দারুণ সাহায্য করছেন তিনি। আর তাই ইয়াসিরকে ছাড়া টেস্ট খেলতে নামা বর্তমানে যেন পাকিস্তানীদের কাছে অসম্ভব চিন্তা। কিন্তু আবুধাবি টেস্ট শুরুর আগের দিন হঠাৎ দলের অনুশীলন চলাকালে ইনজুরিতে পড়েছিলেন ইয়াসির। সেই কারণেই আর এই ম্যাচে খেলা হয়নি তার।

পাকিস্তান-ইংল্যান্ড সিরিজে আরও ২টি টেস্ট বাকি রয়েছে। ম্যাচ দুটির একটি হবে দুবাইয়ে; অন্যটি সারজায়। ইয়াসির আশা করছেন এই দুই ম্যাচেই খেলতে পারবেন তিনি। পাকিস্তানের এক টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাতকারে ইয়াসির বলেছেন, ‘আবুধাবির পিচ দেখার পর দলের অনুশীলনে আমি কঠোর পরিশ্রম করেছিলাম। তাই এই ম্যাচ খেলতে না পারা নিঃসন্দেহে আমার জন্য হতাশাজনক। এখানকার (আবুধাবি) পিচ অনেক স্লো; লেগ স্পিনারদের জন্য বাড়তি সুবিধা রয়েছে।’

এদিকে, ইয়াসির দলে না থাকাটা পাকিস্তানের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি বলেই মনে করছে পাকিস্তানীরা।

(দ্য রিপোর্ট/জেডটি/আরকে/অক্টোবর ১৮, ২০১৫)