প্রচ্ছদ » ক্রিকেট » বিস্তারিত

যুব দলের ভারত যাত্রা ১৭ নভেম্বর

২০১৫ অক্টোবর ১৮ ১৮:০৬:৫১
যুব দলের ভারত যাত্রা ১৭ নভেম্বর

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : আগামী বছরের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে দেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত হবে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের আগে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রস্তুতি যথাযথভাবে সম্পন্ন করতে বেশকিছু ম্যাচ খেলার ব্যবস্থা করেছে বিসিবি। এই লক্ষ্যেই ১৭ নভেম্বর ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে ভারত যাচ্ছে অনূর্ধ্ব-১৯ দল। সেখানে মোট ৫টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে মিরাজ-শান্তরা।

রবিবার মিরপুরে একাডেমি মাঠে সংবাদ মাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যুব দলের কোচ মিজানুর রহমান বাবুল। তিনি বলেছেন, ‘আফগানিস্তান, বাংলাদেশ ও ভারতকে নিয়ে ত্রিদেশীয় একটি সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে। আমরা ১৭ নভেম্বর ভারতের উদ্দেশে রওনা দেব। প্রত্যেকটি দলের সঙ্গে, আমরা ২টি করে ম্যাচ খেলার সুযোগ পাব; ফাইনালে যেতে পারলে মোট ম্যাচের সংখ্যা দাঁড়াবে ৫টি।’

নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে দারুণ সন্তুষ্ট দলের কোচ। দলের শক্তি হিসেবে তিনি স্পিন আক্রমণকে বেছে নিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে যুব দলের কোচ বলেছেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হোম এবং অ্যাওয়ে ভিত্তিতে খেলা ২টি সিরিজই আমরা জিতেছি। আমাদের স্পিন বিভাগ অনেক ভাল খেলেছে। স্পিন আক্রমণকেই আমি সবচেয়ে এগিয়ে রাখব।’

ইতোমধ্যে দলের স্পিনাররা নিজেদের প্রমাণ দিলেও আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজে আবারও নিজেদের প্রমাণ করতে পারবে বলে আশাবাদী মিজানুর রহমান। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘আমাদের স্পিন আক্রমণ কতটা শক্তিশালী, এই বিষয়ে আসন্ন সিরিজেই নিশ্চিত হওয়া যাবে। বিশেষ করে ভারতের বিপক্ষে বোঝা যাবে আমাদের স্পিন শক্তির বর্তমান অবস্থা। ভারত ঐতিহ্যগতভাবেই স্পিনে খুবই ভাল। সব মিলিয়ে এই সিরিজটি আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই সিরিজটি খেললে আমরা বুঝতে পারব, আমাদের কোথায় আরও উন্নতি দরকার।’

ত্রিদেশীয় সিরিজে, ভারত সম্পর্কে ধারণা থাকলেও নেই আফগানিস্তান সম্পর্কে। যদিও এরই মধ্যে আফগানদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করছেন কোচ মিজানুর রহমান। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছেন, ‘ভারতের দল সম্পর্কে আমাদের ধারণা রয়েছে। আমরা আফগানিস্তান দল সম্পর্কে জানতেও তথ্য সংগ্রহ করছি। সহযোগী দেশগুলো একটা সুবিধা পায়। ওরা ২০ বছর বয়সী ক্রিকেটারদেরও খেলাতে পারবে। এ দিক থেকে, বয়সের কারণে হয়তো আমরা কিছুটা পিছিয়ে থাকব।’

(দ্য রিপোর্ট/আরআই/কেআই/আরকে/আরকে/অক্টোবর ১৮, ২০১৫)