প্রচ্ছদ » রাজনীতি » বিস্তারিত

বাম মোর্চার রোডমার্চে পুলিশের লাঠিপেটায় বিএনপির নিন্দা

২০১৫ অক্টোবর ১৮ ২১:২২:৪৯
বাম মোর্চার রোডমার্চে পুলিশের লাঠিপেটায় বিএনপির নিন্দা

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বন্ধের দাবিতে গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার রোডমার্চে পরপর দুইদিন পুলিশের লাঠিপেটায় অন্তত ‘১০ জন এ্যাক্টিভিস্ট আহত’ হওয়ায় বিএনপির পক্ষ থেকে সমবেদনা ও নিন্দা জানানো হয়েছে।

দলের মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপন গণমাধমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ সমবেদনা ও নিন্দা জানান।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আমাদের দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল সরকারের তরফ থেকে সভা-সমাবেশ-র‌্যালি-প্রতিবাদ করার সকল মাধ্যমকে বলপ্রয়োগের মাধ্যমে অসাংবিধানিক পন্থায় দমন করার কলা-কৌশলকে নিন্দা করে। দেখা যাচ্ছে, ২০১৪ সালে ৫ জানুয়ারিতে ভোটারদের ভোট ছাড়াই এখন যে সরকার ক্ষমতায় রয়েছে- তারা ক্রমাগতভাবে শুধু ভোটের অধিকার হরণ করেই ক্ষান্ত থাকছে না- তারা একাধারে কর্তৃত্ববাদী শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় সংবিধানে প্রতিশ্রুত সকল মৌলিক ও মানবাধিকারকেও হরণ করতে পিছপা হচ্ছে না।’

‘পৃথিবীর অন্যতম প্রাকৃতিক হেরিটেজ সুন্দরবনের সন্নিকটে কয়লাভিত্তিক কোনো প্রকল্প গড়ে উঠুক-সে বিষয়ে আমাদের দলসহ অধিকাংশ রাজনৈতিক দল, পরিবেশবাদী সংগঠন বিরোধিতা করে আসছে। কেননা রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প হলে সুন্দরবন বিপন্ন হয়ে যাবে। দেশের মানুষ পরিবেশের ক্ষতি হবে না- এমন কোনো স্থানে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে উঠুক তা চায়, কিন্তু কোনোভাবেই সুন্দরবনের বিনিময়ে নয়।’ বিবৃতিতে বলেন তিনি।

রিপন বলেন, ‘সরকার অবশ্যই অবগত আছে যে, সুন্দরবনের সন্নিকটে বিদ্যুৎ প্রকল্প প্রতিষ্ঠা করার নীতির কারণে ইতোমধ্যেই তারা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন। এ প্রকল্পে কয়েকটি দেশ তাদের প্রতিশ্রুত বিনিয়োগ প্রস্তাব প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এমনি একটি প্রেক্ষাপটে সম্পূর্ণ জেদের বশে সরকার সুন্দরবনের নিকটেই কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প এগিয়ে নেওয়ার গো ধরে বসে আছে এবং এর প্রতিবাদকারীদের দমন-নিপীড়ণের মাধ্যমে স্তব্ধ করতে চাইছে। এটা কেবল জনগণের কাছে দায়-জবাবদিহিতাহীন একটি স্বৈরশাসন ব্যবস্থায় সম্ভব।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপি-রামপালে বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণের আগে স্বাধীন-নিরপেক্ষ-আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এনভাইরনমেন্টাল ইমপ্যাক্ট এ্যাসেসমেন্ট করার জন্য দাবী পূণর্ব্যক্ত করছে।

(দ্য রিপোর্ট/এমএইচ/এমডি/অক্টোবর ১৮, ২০১৫)