প্রচ্ছদ » অপরাধ ও আইন » বিস্তারিত

যমুনা টিভি ও যুগান্তরের বিরুদ্ধে গ্রামীণফোনের মামলা

২০১৫ অক্টোবর ১৯ ১২:৩২:০৮ ২০১৫ অক্টোবর ১৯ ১৩:৫৫:০০
যমুনা টিভি ও যুগান্তরের বিরুদ্ধে গ্রামীণফোনের মামলা

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : মিথ্যা ও ভুল তথ্য সম্বলিত সংবাদ প্রচার এবং প্রকাশের অভিযোগে যমুনা টেলিভিশন ও দৈনিক যুগান্তরের বিরুদ্ধে মানহানির দুটি মামলা করেছে বেসরকারি মোবাইলফোন অপারেটর গ্রামীণফোন।

একই সঙ্গে যমুনা টেলিভিশন ও যুগান্তর পত্রিকায় গ্রামীণফোন সংক্রান্ত খবর প্রকাশের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের আবেদন করা হয়েছে।

ঢাকার প্রথম যুগ্ম জেলা জজ শাহাদাত হোসেনের আদালতে সোমবার গ্রামীণফোনের এক কর্মকর্তা বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

পৃথক মামলায় ওই দুটি গণমাধ্যমের প্রত্যেকটির বিরুদ্ধে এক হাজার কোটি টাকার মানহানির অভিযোগ আনা হয়।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর দৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় ‘রাজস্ব ফাঁকির শীর্ষে গ্রামীণফোন’, ১৭ সেপ্টেম্বর ‘সাড়ে সাত হাজার কোটি টাকা নিয়ে গেছে গ্রামীণফোন’, ১৮ সেপ্টেম্বর ‘রেলওয়ে টেলিকম নেটওয়াক নিয়ে গ্রামীণফোনের হরিলুট’, ১৯ সেপ্টেম্বর ‘প্রতারণার জালে শীর্ষে গ্রামীণফোন’, ২০ সেপ্টেম্বর ‘সিম রিপ্লেসমেন্টের নামে গ্রামীণফোনের কর ফাঁকি দেড় হাজার কোটি টাকা’সহ বিভিন্ন শিরোনামে গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভুল সংবাদ প্রকাশ করে পত্রিকাটি। এ ঘটনায় গ্রামীণফোনের এক হাজার কোটি টাকার মানহানি হয়েছে উল্লেখ করে মামলাটি করা হয়। মামলায় বিবাদী করা হয়েছে-দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম, প্রকাশক সালমা ইসলাম, রিপোর্টার মেজবা মাসুদ, মনির হোসেন, ডাইরেক্টর আব্দুল ওহাব ও যমুনা প্রিন্ট এ্যান্ড পাবলিকেশন।

বিভিন্ন সময়ে একই ধরনের মিথ্যা, ভুল ও বানোয়াট সংবাদ প্রচার করায় যমুনা টিভির বিরুদ্ধে এক হাজার কোটি টাকার মানহানি মামলা করেন গ্রামীণফোন। এ মামলায় বিবাদী করা হয়- যমুনা টিভির এমডি শামীম ইসলাম,প্রধান বার্তা সম্পাদক ফাহিম আহম্মেদ, রিপোর্টার সিমা ভুমিক ও মাসুদুর জামান।

(দ্য রিপোর্ট/জেএ/এনডিএস/এইচ/অক্টোবর ১৯, ২০১৫)